টুঙ্গিপাড়ায় মশায় অতিষ্ট পৌরবাসী ফরিদপুরে সংঘবদ্ধ নারী পাচার চক্রের ৮ সদস্যকে আটক করেছে র‌্যাব গোপালগঞ্জে বিশেষ অভিযানে গ্রেফতার ২৯ পেঁয়াজ-রসুন-মাছ-মাংস-চিনির দাম কমেছে
||   টুঙ্গিপাড়ায় মশায় অতিষ্ট পৌরবাসী      ||   ফরিদপুরে সংঘবদ্ধ নারী পাচার চক্রের ৮ সদস্যকে আটক করেছে র‌্যাব      ||   গোপালগঞ্জে বিশেষ অভিযানে গ্রেফতার ২৯      ||   পেঁয়াজ-রসুন-মাছ-মাংস-চিনির দাম কমেছে      ||   চতুর্থবারের মতো ঢাকা রেঞ্জের শ্রেষ্ঠ তদন্ত কর্মকর্তা এসআই শহিদুল      ||   এমপি বদির বেয়াইয়ের গুলিবিদ্ধ মরদেহ উদ্ধার      ||   ধোনি-মোদীর পর বিরাটের চ্যালেঞ্জ নিলেন আনুশকা      ||   মালয়েশিয়ার বিমানে গুলি করার অভিযোগ অস্বীকার রাশিয়ার      ||   কাভার্ড ভ্যানের চাপায় বৃদ্ধ নিহত      ||   গোপালগঞ্জে বিডিক্লিনের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী      ||   রাণীনগরে বিধবার গরু চুরি!      ||   রাণীনগরে মাদকসহ দুই জন গ্রেফতার      ||   রাণীনগরে ভ্রাম্যমান আদালতে জরিমানা      ||   মরদেহ দেখতে গিয়ে প্রাণ গেলো মা-মেয়ে-নাতনির      ||   মধুখালীতে ইয়াবাসহ এক মাদক ব্যবসায়ী আটক       
গোপালগঞ্জে অন্ধকার ছেড়ে আলোর পথে আসলেন চার মাদক ব্যবসায়ী
গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি: ১৩/০৫/২০১৮- গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলায় পুলিশের উদ্যোগে অন্ধকার জগৎ থেকে আলোর পথে ফিরলেন চার মাদক ব্যবসায়ী। এদের দুজন নারী ও দুজন পুরুষ। এরা হলেন, কাশিয়ানী উপজেলার মহেশপুর ইউনিয়নের পশ্চিম মাঝিগাতি গ্রামের মো: মিজানুর রহমান (৬০), রুবিয়া বেগম (২৮), মো: সোহেল সেখ (৩০) ও সোহাগী বেগম (২২)। শনিবার থেকে তারা মাদক ব্যবসা ছেড়ে বাকী জীবনে সময় ধর্ম-কর্ম পালন করার সিদ্ধান্ত গ্রহন করেন। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, এই চার জন দীর্ঘ দিন যাবত এলাকায় মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত ছিল। কাশিয়ানী থানা পুলিশ একাধিকবার তাদের গ্রেফতার করে জেলহাজতে পাঠিয়েছে। জেল থেকে ছাড়া পেয়েই তারা আবারও শুরু করত মাদক ব্যবসা। মাদক ব্যবসায়ী মো: মিজানুর রহমান (৬০) বলেন, পেটের দায়ে এতো দিন খারাপ কাজ করেছি। কাশিয়ানী থানার ওসি সাহেবের উদ্যোগে আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি আর এ খারাপ ব্যবসা করবো না। বাকী জীবন ধর্ম-কর্ম করবো। এতে আর কেউ আমাদের খারাপ চোখে দেখবে না। যারা এ ব্যবসায় জড়িত তাদেরকেও ব্যবসা ছেড়ে ভাল পথে আসার আহবান জানান তিনি। কাশিয়ানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো: আজিজুর রহমান বলেন, আমি ব্যক্তিগত ভাবে উদ্যোগ গ্রহন করি এদের মাদক ব্যবসা ছাড়ানোর জন্য। এরপর এদের সাথে যোগাযোগ করি ও কাউন্সিলিং করি। আমার কথায় তারা মাদক ব্যবসা ছেড়ে দিতে রাজি হন। তিনি আরো বলেন, শুক্রবার রাতে ওই চার মাদক ব্যবসায়ীকে নিয়ে স্থানীয়দের সাথে আলোচনায় বসি। তারা সকলের সামনে তওবা করে মাদক ব্যবসা ছেড়ে দেবেন বলে সিদ্ধান্তের কথা উপস্থিত সকলকে জানান। পরে তাদের জায়নামাজ, টুপি, পাঞ্জাবি, তসবিহ, লুঙ্গি, শাড়ি ও কিছু নগদ টাকা দেওয়া হয়। এ সময় মহেশপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ ও গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

কলাম
গোপালগঞ্জে অন্ধকার ছেড়ে আলোর পথে আসলেন চার মাদক ব্যবসায়ী

বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের দায়দায়িত্ব নিশ্চিত হোক

 
 
All rights reserved. Copyright © 2018 ONLINE GBANGLANEWS || Developed by : JM IT SOLUTION
জি বাংলা নিউজ পোর্টালের কোন সংবাদ,ছবি, কোন তথ্য পূর্বানুমতি ছাড়া কপি বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।